২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭, শুক্রবার

দ. আফ্রিকার উল্টোপথে বাংলাদেশ

print
দক্ষিণ আফ্রিকার উল্টোপথে হাঁটছে বাংলাদেশ। স্বাগতিকরা প্রথম দিন শেষ করেছিল ১ উইকেট হারিয়ে ২৯৮ রান তুলে। যে একটি উইকেটের পতন হয়েছিল সেটি রান আউটের খাত থেকে এসেছিল। আজ দ্বিতীয় দিন আরো দুটি উইকেট হারিয়ে ৪৯৬ রানে হঠাৎ ইনিংস ঘোষণা করেন ফাফ ডু প্লেসিস।

সে সময় তামিম মাঠের বাইরে থাকায় উদ্বোধনী জুটিতে ব্যাট করতে নামতে পারেননি বাংলাদেশের ড্যাশিং ওপেনার। তার পরিবর্তে ইমরুল কায়েস ও লিটন কুমার দাস ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নামেন। ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ ঠিক দক্ষিণ আফ্রিকার উল্টোপথে হাঁটছে। যেখানে প্রোটিয়ারা ৩ উইকেট হারিয়ে ৪৯৬ রান তুলেছে, সেখানে বাংলাদেশ ১০৩ রান তুলতেই হারিয়েছে ৩ উইকেট! মুমিনুল হক ও তামিম ইকবাল চতুর্থ উইকেট জুটিতে ২৪ রান তোলায় দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ উইকেট হারিয়ে ১২৭ রান। তামিম ২২ ও মুমিনুল ২৮ রানে অপরাজিত আছেন। তারা দুজন তৃতীয় দিনে ব্যাট করতে নামবেন। দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে এখনো ৩৬৯ রানে পিছিয়ে রয়েছে। ফলোঅন এড়াতে এখনো ১৬৯ রান প্রয়োজন বাংলাদেশের।

শুক্রবার বাংলাদেশ ব্যাট করতে নেমে ১৬ রানে প্রথম উইকেট হারায়। কাগিসু রাবাদার শর্ট বল ইমরুল কায়েস পরিমরি করে খেলার চেষ্টা করেন। বল তার ব্যাট ছুঁয়ে সেকেন্ড স্লিপে এইডেন মার্করামের হাতে জমা হয়। সাজঘরে ফেরেন ইমরুল। ২০ বল খেলে ৭ রান করে যান তিনি। ৩৬ রানের মাথায় ১৪৬ ওভার কিপিং করা লিটন কুমার দাসও সাজঘরের পথ ধরেন। মরনে মরকেলের বলে ফার্স্ট স্লিপে হাশিম আমলার হাতে ধরে পড়েন লিটন। ২৯ বলে চারটি চারের সাহায্যে ২৫ রান করে যান তিনি। এরপর তৃতীয় উইকেটে দলীয় সংগ্রহকে এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ও মুমিনুল হক। মুশফিক বেশ মারমুখী ব্যাটিং করেন। ৫৭ বলে ৭টি চার ও ১ ছক্কায় ৪৪ রান করার পর দলীয় ১০৩ রানের মাথায় আউট হয়ে বাংলাদেশকে ব্যাকফুটে ফেলে দেন মুশফিক। তার উইকেটটি নেন কেশব মহারাজ। দুইবার জীবন পাওয়া ‍মুশফিক এইডেন মার্করামের হাতে ধরা পড়েন।

এরপর মুমিনুল ও তামিম মিলে দিনের বাকি সময়টুকু পার করেন।

তার আগে ১ উইকেট হারিয়ে ২৯৮ রান করা দক্ষিণ আফ্রিকা আজ শুক্রবার দ্বিতীয় দিনে আবার ব্যাট করতে নামে। দিনের প্রথম সেশনে অবিচ্ছিন্ন থাকেন ডিন এলগার ও হাশিম আমলা। তারা দুজন দ্বিতীয় উইকেটে ২১৫ রানের জুটি গড়েন। তাতে ১ উইকেটে ৪১১ রান তুলে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। বিরতির পর পরই আউট হয়ে যান আমলা। দলীয় ৪১১ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ১৩৭ রানে শফিউল ইসলামের বলে মেহেদী হাসান মিরাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন আমলা।

৪৪৫ রানে তৃতীয় উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা। এ সময় মুস্তাফিজের বলে ১৯৯ রান করে আউট হয়ে যান ডিন এলগার। মাত্র ১ রানের জন্য ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি মিস করেন তিনি। এরপর চতুর্থ উইকেটে টেম্বা বাভুমা ও ফাপ ডু প্লেসিস দলীয় সংগ্রহকে ৪৯৬ রান পর্যন্ত টেনে নেন। চা বিরতিতে যাওয়ার পর ৩ উইকেট হারিয়ে ৪৯৬ রান তোলা দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংস ঘোষণা করে।

মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner

আর্কাইভ

জুন ২০১৮
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০