[X]
২৫ জানুয়ারি ২০১৭, বুধবার

সরাসরি নির্বাচন চাই অন্য কিছু মানব না

print
নিজস্ব প্রতিবেদক
দ্যাবিডিনিউজটোয়েন্টিফোর.কম
ঢাকা: ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) সব পদে সরাসরি ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচনের ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ ব্যবসায়ীরা। তাঁরা বলেছেন, সরাসরি ভোটের বদলে বর্তমান ব্যবস্থায় যে নেতারা এফবিসিসিআইতে আসেন, তাঁরা সংগঠনটির উন্নতিতে কাজ করেন না। ফলে সরকারের কাছেও এফবিসিসিআইয়ের গুরুত্ব কমে গেছে। এতে ব্যবসায়ীদের স্বার্থরক্ষা হচ্ছে না।

এফবিসিসিআই সংস্কার বাস্তবায়ন পরিষদ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় ব্যবসায়ীরা এসব কথা বলেন। রাজধানীর ইস্কাটনে লেডিস ক্লাবে গতকাল মঙ্গলবার সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে ১১টায় এই সভা শুরু হয়ে টানা বিকেল পৌনে ৪টা পর্যন্ত চলে। আলোচনায় অংশ নিয়ে ব্যবসায়ীরা সংস্কারের পক্ষে মত দেন।

এফবিসিসিআই দেশের পণ্যভিত্তিক অ্যাসোসিয়েশন ও চেম্বারের সংগঠন। এই সংগঠনের নেতারা সাধারণ পরিষদের সদস্যদের ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়ে আসতেন। ২০০২ সালে সরকার নিয়ম পাল্টে পরোক্ষ ভোটের ব্যবস্থা করে। পাশাপাশি মনোনীত পরিচালক-ব্যবস্থা চালু করা হয়। এখন ৫২টি পরিচালক পদের মধ্যে ২০টি পদে পরিচালক আসেন সরকার মনোনীত সংগঠন থেকে। সাধারণ ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে সরাসরি ভোটের দাবি করে আসছিলেন। এ লক্ষ্যে গঠিত সংস্কার বাস্তবায়ন পরিষদ নতুন করে সক্রিয় হয়েছে।

মতবিনিময় সভার শুরুতে সংগঠনটির আহ্বায়ক মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, অতীতে প্রত্যেক সভাপতি বলেছেন, সংস্কার হবে। কিন্তু হয়নি। এবার সংস্কারের জন্য সালমান এফ রহমানের নেতৃত্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কমিটি করায় ব্যবসায়ীরা আশায় বুক বেঁধেছিলেন। তবে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে, এবারও সংস্কার হচ্ছে না।

সাবেক সহসভাপতি আবু আলম চৌধুরী বলেন, এখন সরকারের কাছে দাবি নিয়ে গেলে বলে ঢাকা চেম্বার ও মেট্রোপলিটন চেম্বারের সঙ্গে আলোচনা করে আসতে। অথচ হওয়া উচিত ছিল যে ওই সংগঠন দুটি এফবিসিসিআইয়ের সঙ্গে আলোচনা করবে।

সাধারণ পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়ে বোঝাতে পারলে তিনি অবশ্যই সরাসরি ভোটের ব্যবস্থা করবেন।

সাধারণ পরিষদের আরেক সদস্য নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা সরাসরি নির্বাচন চাই। অন্য কোনো সংস্কার মানব না। প্রধানমন্ত্রীকে ভুল বোঝানোর দিন শেষ।’

ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির সভাপতি তৌফিক এহেসান বলেন, তৃণমূল পর্যায় থেকে ব্যবসায়ীদের নেতা না হওয়ায় মূল্য সংযোজন করের বিষয়টির সমাধান হয়নি। এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক আবু মোতালেব নির্বাচন পিছিয়ে দিয়ে হলেও সংস্কার দাবি করেন।

একপর্যায়ে বক্তব্য দিতে এসে এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সেলিমের ছেলে শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, নির্বাচনের তিন মাস আগে সংস্কারের কথা বলা হচ্ছে। আলোচনার মূল সুর হলো বর্তমান পর্ষদের মেয়াদ বৃদ্ধি। অথচ এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান সভাপতি নির্দিষ্ট মেয়াদের বাইরে এক দিনও থাকতে চান না। তিনি সংস্কারকে চলমান প্রক্রিয়া হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, একসঙ্গে সবকিছু হয় না। তিনি সদস্য সংগঠনগুলোর সংস্কার ও ভোটার তালিকা ঠিক করার ওপর জোর দেন।

উপস্থিত ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে ফজলে ফাহিম আরও বলেন, যাঁরা প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করেন, তাঁর কাছে গিয়ে পদ-পদবি নিয়ে আসেন, তাঁরা তাঁর (প্রধানমন্ত্রী) ঠিকাদারি নেননি। সভার আয়োজকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা ব্যানারে প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহার করেছেন। কারও কাছ থেকে কি অনুমতি নিয়েছেন?’

অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআইয়ের প্রথম সহসভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, সাবেক প্রথম সহসভাপতি মো. জসিম উদ্দিনসহ সাবেক কয়েকজন সহসভাপতি, পরিচালক ও সাধারণ পরিষদের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০১৭

মতামত

প্রতিদিনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে

আপনার ই-মেইল দিন

Delivered by FeedBurner

আর্কাইভ

জুন ২০১৭
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« মে    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০